নিউজ টপ লাইন

পেপসির বোতল থেকে চুমুক দিয়ে হাসপাতালে দম্পতি এ কী পাওয়া গেল ?

পেপসির বোতল – কাজ সেরে বাইরে বেরিয়ে এসে কোর্টের সামনে নাদু সিংহের দোকান থেকে ৩০০ মিলির পেপসির বোতল কিনে তাতে চুমুক দেন। চুমুক দেওয়ার পরেই মুখে থকথকে কিছু ঠেকে। মুখ থেকে জিনিসটা বার করে দেখেন, একটি মরা টিকটিকি। গরমের দিনে পানীয়ে যে একটু গলা ভেজাবেন, সে জো-ও আর নেই। অন্তত কলকাতার আলিপুরের একটি ঘটনা সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে। কোল্ড ড্রিংকের বোতলে চুমুক দেওয়ার পরেই মুখে মরা টিকটিকি ঠেকল এক দম্পতির। পেপসির বোতল – বৃহস্পতিবার আলিপুর কোর্টে কাজে গিয়েছিলেন বালিগঞ্জের বাসিন্দা সুচিত্রা সাহা (৪৭) এবং সুব্রত সাহা (৪৯)। দুপুরের গরমে গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে গিয়েছিল। কাজ সেরে বাইরে বেরিয়ে এসে কোর্টের সামনে নাদু সিংহের দোকান থেকে ৩০০ মিলির পেপসির বোতল কিনে তাতে চুমুক দেন। চুমুক দেওয়ার পরেই মুখে থকথকে কিছু ঠেকে। মুখ থেকে জিনিসটা বার করে দেখেন, একটি মরা টিকটিকি।সঙ্গে সঙ্গে বমি শুরু হয়ে যায় দু’জনের। ফোনে খবর দেন মেয়েকে। মেয়ে তড়িঘড়ি ছুটে এসে দু’জনকে নিয়ে যান ঢাকুরিয়া আমরি হাসপাতালে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, সুব্রতবাবুকে ছেড়ে দেওয়া হলেও সুচিত্রাদেবী এখনও হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছেন।ডাক্তারেরা জানিয়েছেন, দু’জনের বমি হয়েছে মূলত ভয় পেয়ে যাওয়ার কারণে। তবে অন্য কোনও বিষক্রিয়ার সম্ভাবনাও তাঁরা উড়িয়ে দিচ্ছেন না। বিষক্রিয়া আটকানোর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।দম্পতির তরফে আলিপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে, কোন ডিস্ট্রিবিউটরের কাছ থেকে এই বোতল সরবরাহ হয়েছিল। কলকাতায় ব্রেস ব্রিজে রয়েছে পেপসির কারখানা। সেই কারখানার কোনও ত্রুটির ফলেই পেপসির ওই বোতলে টিকটিকি চলে এসেছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top